‘ক্যান্ডি বোমা’: যুদ্ধক্ষেত্রে ইউক্রেনের নতুন হাতিয়ার

400e9cae7fadb3c7cd473b40ab2863ec5fe1bae58f8caf44.jpg

তৈরির পর থ্রিডি-প্রিন্টেড এই কেসিংগুলো ‘সি-ফোর’ বিস্ফোরক দিয়ে পূর্ণ করার জন্য পাঠানো হয় বলে উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনে।
কিয়েভভিত্তিক অপেশাদার অস্ত্র-নির্মাতা লিয়োশা জানান, ইউক্রেনে স্থানীয়ভাবে এই বোমা ‘জেচিক’ নামে পরিচিত, যার অর্থ ‘খরগোশ’।

এই ধরনের বোমাকে প্রচলিত ছোট গ্রেনেডের চেয়েও বেশি কার্যকর বলে বর্ণনা করেছেন লিয়োশো। তবে ক্যান্ডি বোমায় ‘মানুষ মারার সক্ষমতা’ কম বলেও জানান তিনি।

গত জুনে থেকে রুশ বাহিনীর ওপর পাল্টা আক্রমণ শুরু করে ইউক্রেন। এতে ইউক্রেনের ৪৩ হাজারের বেশি সেনা নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে রাশিয়া। দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, ‘কথিত পাল্টা আক্রমণ শুরুর পর থেকে জুন-জুলাই মাসে ৪৩ হাজারের বেশি সেনা হারিয়েছে ইউক্রেন। এছাড়া ইউক্রেনসহ বিভিন্ন দেশের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আহত সেনাদের মৃত্যু ও ভাড়াটে সেনাদের হাতে নিহত ও দূর থেকে চালানো নিহতদের কোনো হিসাব নেই।’

রাশিয়ার হিসাব অনুযায়ী, গত জুন ও জুলাই মাসে যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি ৭৬টি এম৭৭৭ কামান, ইউক্রেন বাহিনীর সাঁজোয়া যান, ট্যাংকসহ ৪ হাজার ৯০০টি সামরিক যান ধ্বংস করা হয়েছে। এছাড়াও ইউক্রেনের সামরিক স্থাপনাসহ আরও অনেক সামরিক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, যেগুলোর কোনো হিসাব নেই।

দেড় বছর ধরে চলছে ইউক্রেন ও রাশিয়া সংঘাত, যার শুরু গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে, কিয়েভ অভিমুখে রুশ সামরিক অভিযানের মধ্য দিয়ে। তবে সম্প্রতি রাশিয়ার বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযান শুরু করে ইউক্রেন বাহিনী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top